মেনু নির্বাচন করুন

দর্শনীয় স্থান

ক্রমিক নাম কিভাবে যাওয়া যায় অবস্থান
শালবন বৌদ্ধ বিহার কুমিল্লা শহর হতে ট্যাক্সি যোগে যাওয়া যায়। কুমিল্লা সেনানিবাস বাসট্যান্ড হতে ট্যাক্সি, বাস, রিক্সা যোগে যাওয়া যায়।
ময়নামতি ওয়ার সিমেট্রি কুমিল্লা শহর হতে বাস অথবা ট্যাক্সি যোগে যাওয়া যায়।
বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন একাডেমী (বার্ড) কুমিল্লা শহর হতে ট্যাক্সি যোগে যাওয়া যায়।
শাহ সুজা মসজিদ রিক্সা অথবা ট্যাক্সি যোগে যাওয়া যায়।
বীরচন্দ্র গণপাঠাগার ও নগর মিলনায়তন রিক্সা অথবা ট্যাক্সি যোগে যাওয়া যায়।
উটখাড়া মাজার দেবিদ্বার শহর হতে রিকসা অথবা ট্যাক্সিযোগে যাওয়া যায়।
বায়তুল আজগর জামে মসজিদ দেবিদ্বার বাসস্ট্যান্ড থেকে রিক্সা বা সিএনজি যোগে যাওয়া যায়।
নূর মানিকচর জামে মসজিদ 'ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক' এর নূরমানিকচর বাসস্টেশন থেকে রিক্সা বা ট্যাক্সি যোগে যাওয়া যায়।
চৌধুরী বাড়ি মসজিদ ফেনীর মহিপাল মোড় থেকে ফেনী-চৌমুহনী-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়ক হয়ে প্রায় ১৭ কিলোমিটার দূরে রাস্তার ডান পাশে চৌধুরী বাড়ি মসজিদ। ৪ নং রামনগর ইউনিয়ন এলাকায় অবস্থিত।সুদৃশ্য এ মসজিদটি এ উপজিলা...............
১০ হাজী ওমর আলী (ওমর চাঁন) এর মাজার শরীফ উক্ত মাজারটি অত্র ইউনিয়ন এর ০৭ নং ওয়ার্ডে অবস্থিত, মাজারে যেতে হলে রামদয়াল বাজার থেকে রিক্সা যোগে ২০ টাকা ভাড়া দিয়ে বা পায়ে হেঁটে মাত্র আদা কিঃ মিঃ দক্ষিণে হাজী মাহমুদ মুন্সী বাড়ীর সামনের বাড়ীতে যেতে হয়।
১১ বেতবুনিয়া উপগ্রহ ভূ কেন্দ্র । চট্টগ্রাম থেকে রাঙামাটির বাসে চেপে বেতবুনিয়া।
১২ মাহাসিংদোগ্রী বৌদ্ধ মন্দিরের ঐতিহাসিক পটভূমি মাহাসিংদোগ্রী বৌদ্ধ মন্দির কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদ থেকে ৫ কিঃ মিঃ দুরে অবস্থিত। এই বৌদ্ধমন্দির কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কম্পপ্লেক্স এর পাশে রাখাইন পল্লীতে অবস্থিত। রিক্সা ও ব্যাটারী চালিত গাড়ী যোগে যাওয়া যায়। যাতায়াত ভাড়া প্রায় ৩০-৪০ টাকা।
১৩ মৎস্য অবতরণ ও পাইকারী মৎস্য বাজার মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র কক্সবাজার সদর উপজেলার পশ্চিমে ০৮ কিঃ মিটার দুরে বিমান বন্দর সড়কে অবস্থিত। রিক্সা ও ব্যাটারী চালিত গাড়ী নিয়ে যাওয়া যায়। ভাড়া আনুমানিক ৫০-৬০ টাকা।
১৪ দর্শনীয় স্থান : শমসের গাজী দিঘী ফেনী থেকে CNG/বাস দিয়ে পরশুরাম, পরশুরাম থেকে CNG দিয়ে শমসের গাজী দিঘী যাওয়া যায়।
১৫ জংলী শাহ মাজার ফেনী থেকে CNG/বাস দিয়ে পরশুরাম, পরশুরাম থেকে CNG দিয়ে জংলী শাহ মাজার যাওয়া যায়।
১৬ আবদুল্লাহ শাহ মাজার ফেনী থেকে CNG/বাস দিয়ে পরশুরাম, পরশুরাম থেকে CNG দিয়ে আবদুল্লাহ শাহ মাজার যাওয়া যায়।
১৭ বিলোনিয়া স্থল বন্দর ফেনী থেকে CNG/বাস দিয়ে পরশুরাম, পরশুরাম থেকে CNG দিয়ে বিলোনিয়া স্থল বন্দর যাওয়া যায়।
১৮ মতিরহাট মাছঘাট কমলনগর উপজেলা থেকে বাস যোগে তোরাবগঞ্জ বাজার নেমে সেখান থেকে সিএনজি যোগে মতির হাট মাছ বাজার যাওয়া যায়। কমলনগর উপজেলার মতির হাট বাজারের মাছ ঘাট। এখানে প্রতিদিন জেলেরা নদী থেকে নানা প্রজাতির মাছ ধরে এই ঘাটে এনে উন্মুক্ত ভাবে বিক্রি করে। প্রতিদিন হাজারো জেলের মিলন মেলা হয় এই মতির হাট মাছ ঘাটে বিরল প্রজাতীর মাছ পাওয়া এই ঘাটে। লক্ষ্মীপুর জেলার বিভিন্ন প্রান্ত হতে মানুষ এখানে মাছ ক্রয় করতে আসে। মতির হাট মাছ ঘাটের সুনাম শুধু লক্ষ্মীপুর জেলায় নায় বৃহত্তম নোয়াখালীতে রয়েছে। যাদের বেশি মাছের প্রয়োজন হয় তারাই চলে আসে স্বনাম ধণ্য এই মতির হাট মাছ ঘাটে। যে যার মতো করে চাহিদা অনুযায়ী নিয়ে যায় বিভিন্ন প্রকারের মাছ ক্রয় করে নিয়ে যায়।
১৯ ভাষা সৈনিক কমরেড মোহাম্মদ তোয়াহার স্মৃতিসৌধ ঢাকা থেকে সানফ্লা্ওয়ারে করে এসে সরাসরি হাজির হাট নামতে হবে। নামার পরে হাজির হাট বাজারের উত্তর পাশে তোয়াহা সাহেবের নামে একটি স্কুল আছে যার নাম তোয়াহা স্মৃতি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। তার গেইট দিয়ে ঢুকলে হাতের ডান পাশে এটি অবস্থিত।উপজেলা কমপ্লেক্স থেকে রিক্সা/ মিনি বাস / সিএনজি হাজির হাট বাজারে অবস্থিত তোয়াহা স্মৃতি সৌধে যাওয়া যায়। কমরেড মোহাম্মদ তোয়াহা একজন ভাষা সৈনিক ছিলেন। তৎকালীন সময়ে তিনি রামগতি ও কমলনগরের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ছিলেন। তিনি রামগতি ওকমলনগরের মানুষের জন্য সব সময়ে নিববেদিত প্রাণ ছিলেন। তখনকার রামগতির দকGষি্ন অঞ্চল হলো বর্তমান কমলনগর তার নামে নাম করন করা হয় রামগতি টু লক্ষ্মীপুর আঞ্চলিক মহাসড়ক।
২০ মৎস্য প্রজনন ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্র লক্ষ্মীপুর বাস স্ট্যান্ড থেকে সি এন জি যোগে যাওয়া যায়।

সর্বমোট তথ্য: ৫১



Share with :

Facebook Twitter